রোহিঙ্গাদের জন্য ইসরায়েলের ত্রাণ সহায়তার প্রস্তাব প্রত্যাখান বাংলাদেশের

0

মিয়ানমারে নির্যাতনের শিকার হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য ইসরায়েলের ত্রাণ সহায়তার প্রস্তাব প্রত্যাখান করল বাংলাদেশ। সারা বিশ্বে শুধুমাত্র ইসরায়েলের সঙ্গেই বাংলাদেশের কোন কূটনৈতিক সম্পর্ক নেই। সম্প্রতি জেরুজালেমে ট্রাম্প প্রশাসনের দূতাবাস স্থানান্তরের বিরুদ্ধে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদেও ভোট দেয় বাংলাদেশ।

ওয়াইনেট নিউজের খবরে বলা হয়, সম্প্রতি পালিয়ে আসা ৬ লাখ ৬৫ হাজার শরণার্থীর বোঝা মাথায় নিয়েও ইসরায়েলের এই সহায়তা নেয় নি বাংলাদেশ, সেই সঙ্গে সম্ভাব্য রাজনৈতিক সম্পর্কের প্রচেষ্টাও বিনীত ভাবে প্রত্যাখান করে দক্ষিণ এশিয়ার এই দেশটি।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, মুসলিম দেশ হিসেবে ইসরায়েলের সঙ্গে কোন সম্পর্ক রাখে নি বাংলাদেশ, যদিও ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। দেশটি মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর ধর-পাকড়ের শিকার হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের জন্য অনুদানের প্রস্তাব দেয়। বাংলাদেশ এই সহায়তা প্রস্তাবের জন্য ইসরায়েলকে আন্তরিক ভাবে ধন্যবাদ জানায় কিন্তু সেই সঙ্গে বিনীত ভাবে এই সহায়তা গ্রহণ না করার কথা ব্যক্ত করে। বাংলাদেশ আরো জানায়, কিছু সংবেদনশীল বিষয় জড়িত থাকায় এই সহায়তা গ্রহণ করা যাচ্ছে না এবং দুই দেশের মধ্যে চলমান রাজনৈতিক সম্পর্ক আগেই মতই থাকবে।

প্রসঙ্গত, বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ মিয়ানমারে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গারা নির্যাতনের শিকার হয়ে বাংলাদেশসহ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে আশ্রয় নিয়েছে। এদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি আশ্রয় নিয়েছে বাংলাদেশে। জাতিসংঘের হিসেবে বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থী আছে এবং শরণার্থীর সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। আন্তর্জাতিক বিশ্লেষকরা এই নৃশংসতাকে গণহত্যা ও জাতিগত নিধন বলে অভিহিত করছেন। বাংলাদেশে কর্মরত বিভিন্ন দেশি-বিদেশী ত্রাণ সংস্থাগুলোর মতে, শুধুমাত্র ২৫ আগস্টের সহিংসতার পরই রাখাইন রাজ্যে ৬ হাজার ৭০০ রোহিঙ্গা হত্যাকান্ডের শিকার হয়েছে। ওয়াইনেট নিউজ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here