ঢাবি অধিভুক্ত শিক্ষার্থীদের অবরোধসহ আন্দোলনের হুমকি

0

তীব্র সেশন জটের ফলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা অবরোধসহ আন্দোলনের হুমকি দিয়েছে। পরীক্ষার ফল প্রকাশ এবং পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণসহ সকল সংকট নিরসনের দাবিতে শিক্ষার্থীরা বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারী) অবরোধ এবং কঠোর আন্দোলনে নামার হুঁশিয়ারি দিয়েছে।

২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে রাজধানীর সাতটি কলেজকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত করা হয়। এরপর থেকেই এসব কলেজে সেশনজটের পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনরে সংকট কেবল বেড়েই চলছে।

এখনও রেজাল্ট প্রকাশ করা হয়নি। ২০১৪-১৫ সেশনের দ্বিতীয় বর্ষের পরীক্ষা একবছর আগে শেষ হলেও রেজাল্ট হয়নি।

অপরদিকে ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের দেড় বছর পার হলেও এখনও প্রথম বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষার তারিখ দেয়া হয়নি এখনও।

মাস্টার্স ২০১৩-১৪ সেশনের পরীক্ষা হলেও রেজাল্ট কবে প্রকাশ করা হবে তার কোন তথ্য জানা নেই শিক্ষার্থীদের। তবে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের এ সেশনের মাস্টার্স পরীক্ষার রেজাল্ট প্রকাশ হয়ে গেছে অনেক আগে।

এ প্রসঙ্গে মাস্টার্সের এক শিক্ষার্থী বলেন, সেশন জটের ফলে পরীক্ষার হতে অনেক দেরি হলেও আদৌ রেজাল্ট কবে প্রকাশ হবে এ নিয়েই আমরা শঙ্কায় আছি।

শিক্ষার্থীরা জানান, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা ৪ থেকে ৫ মাস আগে হয়ে গেছে। কিন্তু আমাদের কোন খবর নেই। পরীক্ষা বা অন্য বিষয়ে আমরা কোন তথ্য পাচ্ছি না।

সেশনজটে শিক্ষা জীবন হুমকির মুখে এমন দাবি করে আন্দোলনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষার্থীরা।

ঢাবি অধিভুক্ত সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা জানান, আমাদের আন্দোলনে যেতে হবে। আন্দোলনের বিকল্প কিছু নাই। ১৮ জানুয়ারী নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান করব। রেজাল্ট দ্রুত প্রকাশের এবং বিভিন্ন দাবি-দাওয়ার জন্য আন্দোলন করব।

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হওয়ার পর থেকে শিক্ষককেরাও পড়েছে একাডেমিক জটিলতায়।

বিসিএস সাধারণ শিক্ষা সমিতি সেমিনার সচিব আব্দুল কুদ্দুস বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সাতটি কলেজকে যে অন্তর্ভুক্ত করেছে অপরিকল্পিত ভাবে এ পদক্ষেপ তারা গ্রহণ করেছে।

কলেজ কর্তৃপক্ষ জানায়, সেশনজট কমাতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ হচ্ছে।

ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং সাতটি কলেজ মিলে দিনের পর দিন আমরা বিভিন্ন কার্যক্রম গুলো চালিয়ে যাচ্ছি।

কলেজ গুলো পরিচালনার পুরোপুরি সামর্থ্য তাদের নেই এ বিষয়টি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ স্বীকার করেছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আখতারুজ্জামান বলেন, সমস্যা আছে যা ক্রমান্বয়ে কেটে ওঠতে হবে আমাদের। আমরা অক্ষমতা অর্জন করছি। তিন মাস আগে অনেক কঠোর অবস্থায় ছিলাম। চারমাস আগে আরো কঠিন অবস্থায় ছিলাম, সেখান থেকে এখন উত্তোলন হয়েছি।

গত বছর ২০১৭ সালে পরীক্ষার তারিখ এবং রেজাল্টের দাবিতে কয়েক দফা আন্দোলনে নামে অধিভুক্ত সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here