পেঁয়াজের দামের ঝাঁঝ কমলেও বেড়েছে নতুন আলুর দাম

0

রাজধানীর পাইকারি বাজারে সপ্তাহ ব্যবধানে দেশী পেঁয়াজের দাম কেজিতে কমেছে ১৮ টাকা পর্যন্ত। বেড়েছে নতুন আলুর দাম। এদিকে মোটা চালের দাম অপরিবর্তিত থাকলেও কেজিতে ২ টাকা বেড়েছে সরু চালের দাম । বরাবরের মত সরবরাহ ঘাটতি আর পরিবহন খরচ বাড়ার দোহাই বিক্রেতাদের।

ঝাঁজ কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের। গেল সপ্তাহে পাইকারি বাজারে যে পেঁয়াজের কেজি ছিল ৭৫ থেকে ৮০ টাকা চলতি সপ্তাহে বিক্রি হচ্ছে ৬৩ থেকে ৬৫ টাকায়। কিছুটা কমেছে আমদানি করা পেঁয়াজের দামও। চায়না রসুন ও নতুন আলুর কেজিতে ৩ থেকে ৫ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। পুরাতন আলু বিক্রি হচ্ছে ৬ থেকে ৭ টাকা কেজি দরে।

বিক্রেতারা বলেন, দেশি পেঁয়াজের দাম কমেছে ১০ থেকে ১৫ টাকা। নতুন আলুর দাম বাড়ছে পুরানো আলুর দাম কমেছে। আদার দাম কমেছে কেজিতে বিশ থেকে ত্রিশ টাকা।

আমন চাল বাজারে এলে দাম আরো কমবে এমনটা মনে করা হলেও তা বাস্তবে ঘটেনি। পাইকারি বাজারে ভারতীয় গুটিস্বর্ণার কেজি ৪০ থেকে ৪১ টাকা,২৮ এর কেজি ৪২ থেকে ৪৪ টাকা । কিছুটা বেড়ে এ মৌসুমের দেশী ২৮ চাল বিক্রি হচ্ছে ৪৬ থেকে ৪৮ টাকা কেজি, পুরাতন ২৮- এর কেজি ৫০ থেকে ৫২ টাকা । সেইসাথে মিনিকেটে চালের দামও বাড়তির দিকে। চাল বিক্রেতারা বলেন,  গেল সপ্তাহের থেকে কেজিতে এক থেকে দুই টাকা বেড়েছে। পাইকাররা বলছে চাহিদা যতটুকু ওই পরিমাণে ধান পাওয়া যাচ্ছে না। আরেকটা কারণ পরিবহন খরচ খুব বেশি।

পাইকারি বাজারে দেশী মসুর ডালের কেজি ৮০ থেকে ৮৫ টাকা আর মোটা মসুর বিক্রি হচ্ছে ৪৮ থেকে ৫০ টাকা কেজি । আটা, ময়দা,চিনিসহ অন্যান্য নিত্যপণ্য বিক্রি হচ্ছে আগের দামেই। বিক্রেতারা বলেন,  ‘মোটা মসুরের দাম কমেছে। আমরা অন্য সব একই আছে।’ ৫ লিটারের বোতলজাত সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে ব্র্যান্ডভেদে ৪শ ৮৫ টাকা থেকে ৫শ’ ১০ টাকা পর্যন্ত আর সরিষার তেলের লিটার প্রতি দাম ১শ’ ৯০ থেকে ২০০ টাকা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here