সৌদি নারীদের দৃষ্টিভঙ্গির পরির্বতনের সূএপাত ঘটলো!

0

সৌদি আরবে নারীদের জন্য খেলার মাঠ নেই, নেই সকল পেশায় চাকরির সুযোগও। তাই বলে কী নারীরা থেমে যাবে! স্বপ্নগুলো বদ্ধ থাকবে চার দেয়ালের ভেতরেই? না। স্বপ্ন পূরণে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি দিলেন এক সৌদি নারী। যেখানে পুলিশ বাহিনীর সদস্য হয়ে সফলতার সঙ্গে কাজ করেনে সৌদি আরবের বংশদ্ভূত ওই নারী। তিনিই প্রথম সৌদি নারী যার নিজ দেশে সুযোগ না হলেও ভিনদেশে পুলিশের হয়ে কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে। আল আরাবিয়ার প্রতিবেদনে উঠে এসেছে ওই নারীর স্বপ্ন পূরণের গল্প।

নাদিন আস সিয়াত। প্রাথমকি পড়াশোনা দেশে হলেও স্কলারশিপে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান আস সিয়াত। সেখানে এক বিশ্ববিদ্যালয়ে পছন্দের বিষয় ‘আইন ও সামরিক বিভাগে’ ভর্তি হন। সেই সঙ্গে সুযোগ পেয়ে যান মার্কিন তদন্ত সংস্থা এফবিআই এর অধীনে পুলিশের শাখায় কাজ করার।

নাদিন আস সিয়াত বলেন, তিনিই প্রথম সৌদি নারী যিনি ‘ক্রিমিনাল নিরাপত্তা’ বিভাগে পড়াশোনার পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশ বাহিনীর সঙ্গে কাজেরও সুযোগ পেয়েছেন। ছোটবেলা থেকেই তার পুলিশ ইউনিফর্ম পড়ার ইচ্ছে ছিল। পুলিশে কাজ করার প্রবল ইচ্ছাও ছিল। এ কারণে তিনি পুলিশ বিষয়ক নির্মিত ছবিও দেখতেন। তিনি শাহ সৌদ ইউনিভার্সিটিতে বাণিজ্য ব্যবস্থাপনার ওপর সর্বোচ্চ শিক্ষা লাভ করেন। কিছুদিন সৌদি আরবের প্রাইভেট ও সরকারি প্রতিষ্ঠানে বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন হিসেবে কাজ করেন। তবে এ কাজে বেশিদিন মন বসেনি তার। ফলে চাকরি ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে পড়াশোনার জন্য চলে যান।

পড়াশোনার পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রের কলোরাডো প্রদেশে পুলিশের সঙ্গে ইন্টারনিশিপ শুরু করেন। চারমাস সময়ে তিনি রিসার্চ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন, পেট্রলিং পুলিশে কাজ করেন। ২০১৪ সালে পড়াশোনা শেষ করার পর আরও দুই মাস পুলিশের সঙ্গে কাজ করেন। পরবর্তীতে দেশে ফিরে আসেন।

আসসিয়াত বলেন, এ সময়গুলোতে তার পুলিশের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞা ছিল বড় তৃপ্তিদায়ক ও আনন্দময়। এর মাধ্যমে তিনি নিজের স্বপ্নকে পূরণ করতে পেরেছেন। সূত্র: আল আরাবিয়া

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here