পাল্টে যাচ্ছে ভারতীয় ভিসা বিড়ম্বনা!

0

উত্তর-পূর্ব ভারতের মানুষের মধ্যে বাংলাদেশ সম্পর্কে যে নীতিবাচক ধারণা ছিল সেটি ধীরে ধীরো ইতিবাচকে পরিণত হচ্ছে বলে দাবি করেছেন গুয়াহাটির সহকারী হাইকমিশনের কর্মকর্তারা।

তারা জানিয়েছে, উত্তর-পূর্ব ভারতের মানুষ এখন বাংলাদেশে ভ্রমণ এবং ব্যবসা-বাণিজ্য আগ্রহী হয়ে উঠছে। গত ৯ মাসে সহকারী হাই কমিশন ১০ হাজারের মতো ভিসা ইস্যু করেছে। প্রতিদিন শতাধিক মানুষকে ভিসার জন্য আবেদন করছে।

জানা গেছে, ভারতের এ রাজ্যগুলোর এক শ্রেণীর রাজনৈতিকদের অভিযোগ, প্রচুর বাংলাদেশির অনুপ্রবেশের কারণে এ অঞ্চলে সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। এই ইস্যুটি নিয়ে তাদের রাজনীতির কারণে সাধারণ মানুষের মধ্যেও বাংলাদেশ সম্পর্কে নীতিবাচক ধারণা সৃষ্টি হয়েছে। গত ৯ মাস আগে ভারতের এই ৬টি রাজ্যে কাজ করতে আসামের গুয়াহাটিতে বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশন চালু হয়।

এ বিষয়ে আমাদের সময় ডটকমকে গুয়াহাটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশনার কাজী মুনতাসীর মুর্শেদ বলেন, ‘আমরা যখন এখানে মিশন স্থাপন করেছিলাম তখন বুঝতে পারিনি প্রতিদিন একশোর মতো মানুষ আমাদের কাছে আসবে ভিসা নেবার জন্য। আমরা আসলে খুবই উৎসাহিত বোধ করছি। এই মিশন চালু হওয়ার পর থেকে বাংলাদেশ সম্পর্কে জানার এবং ব্যবসা-বাণিজ্য বৃদ্ধিতে আসামসহ উত্তর-পূর্ব ভারতের মানুষের মাঝে আগ্রহ বেড়েছে। গত নয় মাসে আমরা ১০ হাজারের বেশি ভিসা ইস্যু করেছি ।’

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ সম্পর্কে উত্তর-পূর্বের মানুষের হয়তো কিছু ভূল ধারণা রয়েছে, কিন্তু বর্তমানে সেই ধারণা কমতে শুরু করেছে।’

তিনি আরও বলে, ‘আমরা এ অঞ্চলের বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষের সঙ্গে কথা বলছি। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়-কলেজগুলো গিয়ে তাদেরকে বাংলাদেশ সম্পর্কে ধারণা দিচ্ছি। এতে তাদের মধ্যে দিনদিন বাংলাদেশ সম্পর্কে জানার আগ্রহ বাড়ছে।’

মুর্শেদ বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে উত্তর-পূর্বের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে নানা উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। দিনদিন এ অঞ্চলের মানুষের মধ্যে বাংলাদেশে যাতায়াত ও ব্যবসা-বাণিজ্য বৃদ্ধি পাওয়ায় ঢাকা-গুয়াহাটি বিমান চলাচলের দাবি জোরালো হচ্ছে। আশা করছি খুব শিগগিরই বিমান চলাচল শুরু হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here