কৃষি ও গ্রামীণ খাতে বরাদ্দ বৃদ্ধির দাবি

0

কৃষি ও গ্রামীণ খাতে বরাদ্দ বৃদ্ধি এবং স্বল্পমূল্যে পল্লী রেশনিং ব্যবস্থা চালু করার দাবি জানিয়েছে কৃষক ক্ষেতমজুর সংগ্রাম পরিষদ। বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামেনে আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে এ দাবি জানানো হয়।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, সরকার নিজেদের কৃষিবান্ধব হিসেবে দাবি করলেও বাজেট বরাদ্দে তার প্রতিফলন ঘটেনি। দেশের প্রধান উৎপানশীল খাত কৃষি ও গ্রামীণ অর্থনীতি এবারও উপেক্ষিত। পরিচালনা ও উন্নয়ন বাজেটের মধ্যে কৃষিখাতের বরাদ্দ ৩.৭ শতাংশ। যেখানে প্রতিরক্ষাখাতের বরাদ্দ বৃদ্ধি করে ৫.৬ শতাংশ উন্নীত করা হয়েছে। কৃষিখাতের বরাদ্দের অভিজ্ঞতা হচ্ছে এই অর্থায়নের সুবিধা অধকাংশ ক্ষেত্রেই খোদ উৎপাদক চাষি পায় না। এ দ্বারা লাভবান হয় কৃষি সংক্রান্ত ব্যবসায়ীসহ নানা ধরনের সিন্ডিকেট ও ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান। কৃষিখাতে যে ভর্তুকি খোদ চাষি তারও মুখ দেখে না।

তারা বলেন, সর্বোপরি কৃষক-ক্ষেতমজুর-ভূমিহীনসহ গ্রামের অবহেলিত, শোষিত, নিপীড়িত জনগণের সামগ্রিক উন্নয়নের জন্য শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কর্মসংস্থান, আবসনসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে যে মনোযোগ ও বরাদ্দ দরকার ছিল প্রস্তাবিত বাজেটে তা দৃষ্টিগ্রাহ্য নয়। এই প্রেক্ষিতে কৃষক ও ক্ষেতমজুর সংগ্রাম পরিষদ এই বাজেট প্রত্যাখ্যান করছি এবং কৃষি ও গ্রামীণ খাত, শিল্প, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কর্মসংস্থানের মত মৌলিক খাতসমূহে বরাদ্দ বৃদ্ধি ও তা বাস্তবায়নের বিশ্বাসযোগ্য নীতি-কৌশল প্রণয়নের মাধ্যমে পুরো বাজেটকে ঢেলে সাজানোর দাবি করছি।

সামবেশে উপস্থিত ছিলেন আয়োজক সংগঠনের সভাপাতি সাইফুল হক, সদস্য অধ্যাপক আব্দুস সাত্তার অ্যাড. এস এম সবুজ সহ কৃষক ও ক্ষেতমজুর সংগ্রাম পরিষদের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা কর্মীরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here